ঢাকা মঙ্গলবার, ৬ই ডিসেম্বর ২০২২, ২৩শে অগ্রহায়ণ ১৪২৯


ঢাবি অ্যালাইমনাইয়ের আর্ট গ্যালারি উদ্বোধন

শত শিল্পীর তুলিতে শতবর্ষের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়


২৯ অক্টোবর ২০২২ ০১:২৯

আপডেট:
৩০ অক্টোবর ২০২২ ০৯:৪৭

ঢাবি অ্যালাইমনাইয়ের আর্ট গ্যালারি উদ্বোধন

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) গৌরবময় শতবর্ষের ইতিহাস, ঐতিহ্য, স্থাপনা, আন্দোলন-সংগ্রাম, কৃতি শিক্ষক-শিক্ষার্থীর অর্জন ইত্যাদি সবকিছুকেই চিন্তা-চেতনায় ধারণ করে ঢাকা ইউনিভার্সিটি অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশন-এর উদ্যোগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শতবর্ষের স্মারক হিসেবে ‘রং তুলিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়’ শীর্ষক স্থায়ী আর্ট গ্যালারি উদ্বোধন করা হয়েছে।

আর্ট গ্যালারি উদ্বোধনের পর প্রদর্শনী ঘুরে দেখেন অতিথিরা

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) শতবর্ষের ইতিহাস, ঐতিহ্য, স্থাপনা, আন্দোলন-সংগ্রাম, কৃতি শিক্ষক-শিক্ষার্থীর অর্জনকে ধারণ করে ‘রং তুলিতে শত শিল্পীর আঁকা ১১৩টি শিল্পকর্ম এতে স্থান পেয়েছে। এরমধ্যে ১০৬টি চিত্রকর্ম ও বাকি ৭টি ভাস্কর্য। এগুলোতে নানা আঙ্গিকে প্রতিফলিত হয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের নানা স্থাপনার প্রতীকী ও প্রকাশবাদী চিত্রকর্ম, মানুষ ও স্মৃতি, আন্দোলন-সংগ্রাম ও কৃতি শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের অর্জন। বঙ্গবন্ধু বিধৃত হয়েছেন একাধিক চিত্রকলায়। 

শুক্রবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট ভবনের অ্যালামনাই ফ্লোরে গ্যালারি উদ্বোধন করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর (শিক্ষা) অধ্যাপক ড. এ. এস. এম. মাকসুদ কামাল।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ এমপি। তিনি বলেন, ‘ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শতবর্ষে এই স্থায়ী আর্ট গ্যালারি একটি নতুন মাইলফলক হিসেবে বিবেচিত হলো। যা শতবর্ষী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা, অবকাঠামো, ঐতিহ্য ও স্বাধিকার আন্দোলনের প্রতিচ্ছবি।’

‘রং তুলিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়’ শীর্ষক আর্ট গ্যালারি উদ্বোধন

কে এম খালিদ বলেন, শত শিল্পীর শত দৃষ্টিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শতবর্ষে শত চিত্রকর্ম দিয়ে এই স্থায়ী আর্ট গ্যালারির প্রদর্শনী। একেক জন শিল্পী একেক মন ও একেক দৃষ্টি দিয়ে ছবি আঁকেন। সেই ছবি থেকেই আজকের এই স্থায়ী আর্ট গ্যালারি। একজন মানুষকে শতজন শত দৃষ্টিতে দেখলেও সেই মানুষের অবয়ব নির্দিষ্ট, তেমনি এই ছবিগুলোর অবয়বও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়। মধুর ক্যান্টিন, মুহসীন হল বা কার্জন হল যেখান থেকেই দেখি সেটি আবর্তিত হয় এই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়কেই ঘিরে।

‘রং তুলিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়’ শীর্ষক আর্ট গ্যালারি উদ্বোধন

এ এস এম মাকসুদ কামাল উদ্বোধনী বক্তব্যে বলেন, স্থায়ী আর্ট গ্যালারি স্থাপনে বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিচয় আরো গভীরভাবে জানা যাবে। এইরকম সাসটেইনেবল উদ্যোগ গ্রহণের জন্য অ্যালমনাই অ্যাসোসিয়েশনকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানান তিনি।

স্বাগত বক্তব্যে সংগঠনের মহাসচিব মোল্লা মোহাম্মাদ আবু কাওছার স্থায়ী আর্ট গ্যালারি নির্মাণে সকল সম্মানিত ও খ্যাতিমান নবীন-প্রবীন আর্টিস্ট এবং এই সফল আয়োজন ও বাস্তবায়নে আর্থিক, কারিগরি, পরিকল্পনা ও ডিজাইনে সহযোগি সংশ্লিষ্ট প্রত্যেক ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান। সংগঠনের প্রতিটি কর্মকাণ্ডে সক্রিয় অংশগ্রহন ও কর্মসূচিগুলো সকলের নিকট পৌঁছানোর ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালনের জন্য গণমাধ্যম কর্মীদের ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

‘রং তুলিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়’ শীর্ষক আর্ট গ্যালারি উদ্বোধন

আয়োজনে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অধ্যাপক শিল্পী রফিকুন নবী, ঢাকা ইউনিভার্সিটি অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশন প্রাক্তন সভাপতি এ. কে. আজাদ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. মো. নিজামুল হক ভূঁইয়া, ইস্টার্ন ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আলী রেজা ইফতেখার, ঢাকা ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও এমরানুল হক,ঢাকার অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মমতাজ বেগম, সাধারণ সম্পাদক আফজালুর রহমান বাবু, সাংবাদিক সুভাষ সিংহ রায়।

‘রং তুলিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়’ শীর্ষক আর্ট গ্যালারি উদ্বোধন

ঢাকা ইউনিভার্সিটি অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশন এর সভাপতি আনোয়ার উল আলম চৌধুরী (পারভেজ) অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশন-এর জীবন সদস্যদের জন্য বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা বৃদ্ধি ও গৃহীত বিভিন্ন পরিকল্পনা তুলে ধরেন। সেইসাথে বিশ্ববিদ্যালয়ের অবকাঠামোগত উন্নয়ন, অসচ্ছল শিক্ষার্থীদের শিক্ষাবৃত্তি প্রদান ও ঐতিহ্য রক্ষাসহ সার্বিক উন্নয়নে অংশীদারিত্ব বৃদ্ধির প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন।

অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন সংগঠনের সহ-সভাপতি আশরাফুল হক মুকুল। এসময় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রবীন-নবীন শিল্পীবৃন্দ ও অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশন-এর জীবন সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।